একটা ম্যাচ দেখেই বিচার করা উচিত নয়

Updated: Feb 15

হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগে এবারই প্রথম খেলছে এসসি ইস্টবেঙ্গল এবং এটিকে-মোহনবাগান। দু'দলের মধ্যে ডার্বি ম্যাচে এটিকে-মোহনবাগান জিতে গেল ২-০ গোলে।

তবে মানতেই হবে, এটিকে-র সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় মোহনবাগান বাড়তি সুবিধা পেয়েছে। কারণ, এটিকে গত ছ-বছর ধরেই আইএসএল-এ খেলছে। সেক্ষেত্রে এসসি ইস্টবেঙ্গল এবারই প্রথম। তবে এটা অস্বীকার করার কোনো জায়গা নেই যে এই দু'দলের ম্যাচ অন্য যে কোনো ম্যাচের থেকে ব্যতিক্রম। সেদিক থেকে বিচার করলে এই বিশেষ ম্যাচে বিদেশীদের থেকেও বেশি ভূমিকা থাকে দেশীয় ফুটবলারদের। কারণ, দেশীয়রা এই ম্যাচের গুরুত্ব ভালোমতোই জানে। সেই হিসেবে এসসি ইস্টবেঙ্গলের দেশীয় ফুটবলাররা বিশেষ নজর কাড়তে পারেনি।

বল দখলের লড়াই: হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগের সর্বপ্রথম কলকাতা ডার্বির এক মুহুর্ত। সৌজন্যে: হিরো আইএসএল

ম্যাচে যা দেখলাম তাতে আগামী দিনে লাল-হলুদ মাঝমাঠকে আরও সচল হতে হবে। রক্ষণভাগকে মজবুত করতে হবে। মাঝমাঠের সঙ্গে আক্রমণভাগের যোগসূত্র সচল করতে হবে। দুটো দলই মাঝমাঠকে সংগঠিত করার ব্যাপারে নজর দিয়েছিল। এই ব্যাপারে এটিকে-মোহনবাগান এগিয়ে ছিল। প্রয়োজনে একজনকে ট্যাকল করতে তিনজন তৈরি ছিল। এসসি ইস্টবেঙ্গল রক্ষণে ড্যানি ফক্সকে আমার ভালো লেগেছে, তবে রানা ঘরামি এবং নারায়ণ দাসকে আগামী দিনে অনেক বেশি দায়িত্ব নিতে হবে। মাঝমাঠে পিলকিংটন শুরুটা ভালো করলেও দ্বিতীয়ার্ধে সেভাবে নিজেকে মেলে ধরতে পারেনি। একই কথা প্রযোজ্য মাগোমার ক্ষেত্রেও। শেষদিকে ওকে বেদম মনে হচ্ছিল।

সব শেষে একটা কথা বলতেই হবে—তা হল, এসসি ইস্টবেঙ্গল দলটি নতুন। একটা ম্যাচ দেখেই তাদের বিচার করা ভুল হবে।