ফক্সের লাল কার্ড মেনে নিতে পারছেন না ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তনরা

Updated: Jan 9

এফসি গোয়ার বিপক্ষে হিরো আইএসএল-এ নিজেদের নবম ম্যাচে গত বুধবার ১-১ ড্র করেছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। সেই ম্যাচে আসাধারন পারফর্ম করেছিলেন ১০ নম্বর জার্সিধারী ব্রাইট এনোবাখারে এবং গোলরক্ষক দেবজিৎ মজুমদার। ম্যাচের ৮০ মিনিটে ব্রাইটের করা বিশ্বমানের গোল দেখে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তনরা। কিন্তু একই সাথে তাঁরা কেউই অধিনায়ক ড্যানি ফক্সের ৫৬ মিনিটে দেখা লাল কার্ড মেনে নিতে পারছেন না।

সমরেশ চৌধুরী, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, শিশির ঘোষ ও বিকাশ পাঁজি। নিজস্ব ছবি

লাল-হলুদের প্রাক্তন স্ট্রাইকার শিশির ঘোষ মনে করেন, 'ড্যানি ফক্সকে লাল কার্ড দেখানো উচিৎ হয়নি।' তিঁনি ব্রাইটের খেলায় উচ্ছ্বসিত। তাঁর দৃঢ় বিশ্বাস, এসসি ইস্টবেঙ্গল এবার উন্নতি করবে।

'চমৎকার একটা গোল দেখলাম গত বুধবার,' বললেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মিডফিল্ডার প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়। তিঁনি এও মনে করেন যে, ব্রাইটের আগমনে এসসি ইস্টবেঙ্গল এবার দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াবে। 'ব্রাইট, ব্রাইট এবং ব্রাইট!' বললেন বিকাশ পাঁজি। ব্রাইটের গোল দেখে মুগ্ধ লাল-হলুদের প্রাক্তন অধিনায়ক, মিডফিল্ডার বিকাশ। তবে এর সাথে তিঁনি আরো যোগ করেন, 'ঠিকঠাক রেফারিং হলে ফক্স কখনোই লাল কার্ড পেতেন না।' সমরেশ চৌধুরীর মতে, 'এফসি গোয়ার বিপক্ষে দশ'জনে খেলেও এসসি ইস্টবেঙ্গল ম্যাচটা জিততে পারতো, কিন্তু কেন যে রেফারি ফক্স কে লাল কার্ড দেখালেন তা ঠিক বোধগম্য হল না, কারণ ওর লাথিটা বলে লেগেছিল।' তবে তিঁনি রক্ষণভাগকে আরো ভালো করতে দেখতে চান। এক্ষেত্রে রাজু দলে অন্তর্ভুক্তির পর অনেকটা নির্ভরতা দিয়েছেন। "বেস্ট ডিফেন্স ইজ দ্য বেস্ট অফেন্স"– এটাই মাথায় রেখে খেলতে হবে সবাইকে। আক্রমণভাগ ও মাঝেমাঠের ফুটবলাররা যদি বল নিজেদের আয়ত্তে বেশি রাখতে পারেন, তাহলে রক্ষণভাগের ওপর চাপ কিছুটা কমবে।